স্ত্রীর গায়ে প্রেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে স্বামীর জবানবন্দি : প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার

প্রেস ব্রিফিং : ‘আমি নিজেই আমার স্ত্রী রত্নাকে পেট্রলে পুড়িয়ে হত্যা করেছি’ বলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার মোবারকপুরের গৃহবধূ ফারহানা আক্তার রত্নার স্বামী হাসিবুর রহমান সবুজ।

সোমবার সকালে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান তাঁর সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন ।

তিনি বলেন হাসিবুর রহমান সবুজ সাতক্ষীরার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাকিবুল ইসলামের আদালতে রত্নাকে তার শয়ন কক্ষে পেট্রল ছিটিয়ে আগুন লাগিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। গ্রেফতারের পর তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ সুপার জানান, গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে আগুন দিয়ে হত্যার লক্ষ্যে হাসিবুর রহমান সবুজ তিন লিটার পেট্রল কিনে আনে। পরে সে তার ভাড়া বাসায় নিজেদের শয়ন কক্ষে পাইপের মাধ্যমে পেট্রল ছিটিয়ে দেয়। এর পরই সে গ্যাস লাইটার জালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতেই গৃহবধূ রত্না পুড়ে যায়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হলে গত ৪ মার্চ মারা যায় রত্না(২৬)।

হত্যার মোটিভ জানাতে গিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, ফারহানা আক্তার রত্নার আগের স্বামী মিজানুর রহমানের সাথে তার ৩/৪ টি মামলা চলমান রয়েছে। তাছাড়া মিজানুর রত্নার মাধ্যমে তার বাবার কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে তা আর শোধ দিচ্ছিল না।

এ নিয়ে বিরোধ চরমে উঠলে ২০১৯ সালে রত্না খুলনার ডুমুরিয়ার মিজানুরের ঘর ছেড়ে কুষ্টিয়ার হাসিবুর রহমান সবুজকে বিয়ে করে তালার মোবারকপুরে বাবু সাধুর বাড়িতে ভাড়া থাকতো।

রত্না এর পর থেকে সে সবুজকে ব্যবহার করে সাবেক স্বামী মিজানুরের দোকান পুড়িয়ে ও তাকে হত্যার পায়তারা করতে থাকে। অপরদিকে সবুজের ধারনা জন্মায় যে রত্না তার সাবেক স্বামীর সাথে এখনও মেলামেশা করে।

এসব নিয়ে রত্না ও সবুজের মধ্যে সন্দেহ ও মত বিরোধ চাঙ্গা হতে থাকে। এ সবের প্রতিশোধ নিতে সবুজ পেট্রল দিয়ে তার স্ত্রীকে হত্যা করে। তার ধারনা ছিল ঘরের মধ্যে পাইপ দিয়ে পেট্রল ঢেলে আগুন লাগালে সবার ধারনা হবে রত্না আত্মহত্যা করেছে। কিন্তু পুলিশের হাতে গ্রেফতার হবার পর সবুজ ১৬১ ধারা ও পরে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় বলে জানান পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও পদন্নোতি প্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইলতুৎ মিশ, হেড কোয়ার্টার সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃজিয়াউর রহমান, তালা সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ হুমায়ুন কবির, সহকারী পুলিশ সুপার ডিএসবি মোঃ সাইফুল ইসলাম, আরও আই আজম খান, তালার ওসি মেহেদি রাসেল, তালা থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত সেকেন্দার আলী, দৈনিক কারের চিত্রের সম্পাদক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, চ্যানেল আই টেলিভিশনের ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট এড আবুল কালাম আজাদ, এটিএন বাংলার ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট ও ভয়েস অফ সাতক্ষীরার সম্পাদক এম.কামরুজ্জামান, দৈনিক ইত্তেফাকের ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট মিনি, প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক কল্যাণ ব্যানার্জী, ইনকিলাবের ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট বাচ্চু,ডিবিসি টেলিভিশনের ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট জিল্লুর রহমান, দেশ টিভির ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট সুমন কাইসার, একাত্তর টিভির ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট ও দৈনিক সাতক্ষীরার সম্পাদক বরুণ ব্যানার্জী, সাংবাদিক রঘুণাথ, সাতনদীর বিশেষ প্রতিনিধি আকরামুল ইসলাম, দৈনিক জনকল্যাণের ডিস্ট্রিক্ট ক্রসপন্ডেন্ট মহিদুজ্জামান সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উক্ত প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন।

পোষ্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *