সাতক্ষীরা শহরে অভিনব কায়দায় পুলিশ পরিচয়ে ইজিবাইক নিয়ে উধাও

নিউজ ডেস্ক : সাতক্ষীরা সদর থানার সেকেন্ড অফিসার পরিচয় দিয়ে অভিনব কায়দায় ইজিবাইক নিয়ে চম্পট দিয়েছে প্রতারক চক্র।

শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে শহরের চায়না বাংলা শপিং কমপ্লেক্স এর সামনে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ইজিবাইক চালক আখড়াখোলার ঘাটপাড়া গ্রামের ইনসাফ সরদারের ছেলে ইয়াছিন আলী সরদার জানান, ‘শহরের খুলনা রোড মোড় থেকে একজন যাত্রী পলাশপোল সেটেলমেন্ট অফিসের সামনে থেকে একটি কম্পিউটার আনার কথা বলে আমার ইজিবাইকে ওঠে। এরপর আমি ওই যাত্রীকে নিয়ে চায়না বাংলার সামনে দিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসের উত্তর পাশে আল ফেরদৌস আলফার বাড়ির সামনে যাওয়া মাত্রই রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা এক ব্যক্তির পাশে ইজিবাইকটি রাখতে বলে। এ সময় যাত্রীবেশি প্রতারক দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তিকে বলে, স্যার-কম্পিউটার কোথায়? তখন দাঁড়িয়ে থাকা সেই ব্যক্তি বলে তোমার দেরি হওয়ায় অন্য লোক দিয়ে কম্পিউটারটি পাঠিয়ে দিয়েছি। এরপর ইজিবাইকে থাকা যাত্রী নেমে গিয়ে আমাকে বলেন, উনি সদর থানার সেকেন্ড অফিসার। যেখানে যায় নিয়ে যাও।

এরপর আমি তাকে নিয়ে চায়না বাংলার সামনে যাওয়া মাত্রই ইজিবাইকে বসে থাকা ব্যক্তি আমাকে বলে আমি একটু অসুস্থতাবোধ করছি। তুমি ইজিবাইকটা পাশে রেখে চাবিটা নিয়ে সেটেলমেন্ট অফিসের সামনে থেকে ওই ছেলেটাকে তাড়াতাড়ি ডেকে নিয়ে এসো। এরপর আমি ইজিবাইটা রাস্তার পাশে রেখে চাবিটা নিয়ে তাকে ডাকতে যাই। আলফার বাড়ির সামনে তাকে না পেয়ে ফিরে এসে দেখি আমার ইজিবাইকটি নেই’। আয়ের একমাত্র সম্বল ইজিবাইকটি চুরি হয়ে যাওয়ায় চালক ইয়াছিন আলী হতভম্ব হয়ে পড়ে এবং কান্নায় ভেঙে পড়লে স্থানীয়রা তাৎক্ষণিক বিষয়টি সদর থানায় অবহিত করতে বলেন।

এ ব্যাপারে ইজিবাইক চালক ইয়াছিন আলী সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সচেতন মহলের দাবি, শহরের চায়না বাংলার সামনে এবং আলফার বাড়ির সামনে থাকা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখলে হয়তো প্রতারক চক্রকে শনাক্ত করা সম্ভব হবে। এছাড়া শহরে এ ধরনের প্রতারক চক্রকে দ্রুত ধরতে জেলা পুলিশের জরুরী মোবাইল নাম্বার সমূহ বিভিন্ন যানবাহনের পিছনে সংযুক্ত করার দাবি জানান সচেতন মহল। এ ব্যাপারে পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী ইয়াছিন আলী।

উল্লেখ্য : কিছুদিন আগেও একই ভাবে পুলিশ পরিচয়ে সাতক্ষীরা সুপার সপ থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা নিয়ে প্রতরনা করা হয়।

পোষ্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *