সংসদ টিভিতে আজ থেকে শুরু হচ্ছে “আমার ঘরে আমার স্কুল”

অনলাইন ডেস্ক : ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য আজ রবিবার সংসদ টেলিভিশন চ্যানেলে শুরু হচ্ছে ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ নামে পাঠদান। করোনা ভাইরাসের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা যেন পিছিয়ে না যায় সে জন্য এভাবে সেরা শিক্ষকদের রেকর্ড করা ক্লাস প্রচার হবে। একইভাবে প্রাথমিক স্তরের পাঠদানও শুরু পরিকল্পনা করছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। করোনা ভাইরাসের কারণে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

গতকাল শনিবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম-আল-হোসেন আমাদের সময়কে বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় মাঠপর্যায়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের করণীয় নিয়ে নিদের্শনা দেওয়া করা হয়েছে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের হোমওয়ার্ক দিতে এবং অভিভাবকদের এ ব্যাপারে নির্দেশনা দিতে বলা হয়েছে শিক্ষকদের। সংসদ টেলিভিশনেও আমরা প্রাথমিক স্তরের ক্লাসের পাঠদান প্রচারের পরিকল্পনা করছি।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক বলেন, ‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ শিরোনামে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য সংসদ টিভিতে পাঠদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ২ এপ্রিল পর্যন্ত পাঠদানের রুটিন চূড়ান্ত হয়েছে। এর পরের রুটিন ১ এপ্রিল জানানো হবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা যেভাবে স্কুলে ক্লাস করত, একইভাবে শিক্ষকরা ক্লাস নেবেন এবং ক্লাস শেষে বাড়ির কাজ দেবেন। শিক্ষার্থীরা বাড়ির কাজটি নির্দিষ্ট খাতায় লিখে রাখবে। প্রতিটি বিষয়ের জন্য একটি করে খাতা বানাবে এবং স্কুল খুললে খাতাটি স্কুলের শিক্ষকের কাছে জমা দেবে শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকরা সেই খাতা দেখে নম্বর দেবেন। এই নম্বর বার্ষিক পরীক্ষার নম্বরের সঙ্গে যুক্ত হবে।

তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত এই পৃথিবীর অন্যসব শিক্ষার্থীর মতোই আমাদের শিক্ষার্থীরাও ঘরবন্দি। এখন তাদের সামনে অন্তত দুটো সুযোগ আসছে। এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে হবে। একটি হচ্ছে- সুন্দর, স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপনে অভ্যস্ত হয়ে ওঠা; অন্যটি হচ্ছে বাসায় ভালো করে লেখাপড়া করা।

মহাপরিচালক জানান, এই ভিডিও ইউটিউব ও শিক্ষক বাতায়নে রাখা হবে। যেন যে কোনো শিক্ষার্থী বা তাদের অভিভাবক যে কোনো সময় তা দেখতে পারেন। এ ছাড়া প্রান্তিক শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে সরকার প্রয়োজনে কমিউনিটি রেডিওতে ক্লাস প্রচারের ব্যবস্থা করবে।

ক্লাস বন্ধের এই সময়ে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ফলে প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থী অনেকটা ঘরবন্দি অবস্থায় আছে। এর মধ্যে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থী পৌনে দুই কোটির মতো, মাধ্যমিকে এক কোটির ওপরে; বাকিরা উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত। ইতোমধ্যে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইনে পাঠদান শুরু করেছে।

পাঠদানের সূচি

প্রতিদিন ক্লাস শুরুর আগে সকাল ৯টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশন ও করোনা ভাইরাস সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের সচেতন করা হবে।

২৯ মার্চ : ষষ্ঠ শ্রেণির ইংরেজি বিষয়ে পাঠদান সকাল ৯টা ৫ থেকে ৯টা ২৫ মিনিট; বিজ্ঞান বিষয়ে পাঠদান ৯টা ২৫ থেকে ৯টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত।

সপ্তম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বিষয়ে পাঠদান ৯টা ৫০ থেকে ১০টা ১০ মিনিট পর্যন্ত; বিজ্ঞান বিষয়ে পাঠদান ১০টা ১০ মিনিট থেকে ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

অষ্টম শ্রেণির গণিতের পাঠদান ১০টা ৩৫ থেকে ১০টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত; ইংরেজির পাঠদান ১০টা ৫৫ থেকে ১১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত।

নবম শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ে পাঠদান বেলা ১১টা ২০ থেকে ১১টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত। গণিত বিষয়ে পাঠদান ১১টা ৪০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

৩০ মার্চ : ষষ্ঠ শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ৯টা ৫ থেকে ৯টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ৯টা ২৫ থেকে ৯টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত।

সপ্তম শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ৯টা ৫০ থেকে ১০টা ১০ মিনিট পর্যন্ত। বিজ্ঞান ১০টা ১০ থেকে ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

অষ্টম শ্রেণির গণিত ১০টা ৩৫ থেকে ১০টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। বিজ্ঞান ১০টা ৫৫ থেকে ১১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত।

নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বেলা ১১টা ২০ থেকে ১১টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত। ইংরেজি ১১টা ৪০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

৩১ মার্চ : ষষ্ঠ শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় সকাল ৯টা ৫ থেকে ৯টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত। ইংরেজি ৯টা ২৫ থেকে ৯টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত।

সপ্তম শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ৯টা ৫০ থেকে ১০টা ১০ মিনিট পর্যন্ত। বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ১০টা ১০ থেকে ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

অষ্টম শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ১০টা ৩৫ থেকে ১০টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। ইংরেজি ১০টা ৫৫ থেকে ১১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত।

নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ১১টা ২০ থেকে ১১টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত। রসায়ন ১১টা ৪০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

১ এপ্রিল : ষষ্ঠ শ্রেণির ইংরেজি সকাল ৯টা ৫ থেকে ৯টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত। বিজ্ঞান ৯টা ২৫ মিনিট থেকে ৯টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত।

সপ্তম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ৯টা ৫০ থেকে ১০টা ১০ মিনিট পর্যন্ত। বিজ্ঞান ১০টা ১০ থেকে ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

অষ্টম শ্রেণির গণিত ১০টা ৩৫ থেকে ১০টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। ইংরেজি ১০টা ৫৫ থেকে ১১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত।

নবম শ্রেণির তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ১১টা ২০ থেকে ১১টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত। গণিত বেলা ১১টা ৪০ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

২ এপ্রিল : ষষ্ঠ শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় সকাল ৯টা ৫ থেকে ৯টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ৯টা ২৫ থেকে ৯টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত।

সপ্তম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ৯টা ৫০ থেকে ১০টা ১০ মিনিট পর্যন্ত। বিজ্ঞান ১০টা ১০ থেকে ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত।

অষ্টম শ্রেণির গণিত ১০টা ৩৫ থেকে ১০টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। বিজ্ঞান ১০টা ৫৫ থেকে ১১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত।

নবম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় ১১টা ২০ থেকে ১১টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত। ইংরেজি ১১টা ৪০ মিনিট থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

পোষ্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *