টিভি পর্দায় নতুন মুখ সাতক্ষীরার ছেলে : আহমেদ আশিক

জি এম আলমগীর: বেসরকারি টিভি চ্যানেল একুশে টিভি(ইটিভি) ও এস এ টিভির ফ্যাশন শোতে প্রধান মডেল হিসেবে কাজ করেছেন সাতক্ষীরার কৃর্তি সন্তান আহমেদ আশিক। তিনি সাতক্ষীরার মুনজিতপুর এলাকার মামুন গাজীর ছেলে। চার ভাই বোনের মধ্যে তিনিই বড়। আশিক এর সাথে একান্ত আলাপনে দৈনিক জনকল্যাণ।

জনকল্যাণ : আশিক আপনার শুরুটা কীভাবে?

আশিক : ছোট বেলা থেকেই ইচ্ছে ছিলো মিডিয়ায় কাজ করার। বলতে পারেন সেই ইচ্ছা শক্তি থেকেই সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম। আমার উচ্চতা ৬ ফুট ১ ইঞ্চি। হঠ্যাৎই ফেইসবুকে ডিরেক্টর বি ইউ শুভ ভাইয়ের সাথে আমার কথা হয়, তিনি আমাকে অভিনেতা অপূর্ব ভাই ও তানজিন তিশা আপুর সাথে একটি প্যাকেজ নাটকে ব্যাগগ্রাউন্ড আর্টিস হিসেবে কাজ করার সুযোগ দেন। নাটকের নাম ছিলো গিটারিস্ট। এভাবেই ছোট পর্দায় অভিষেক বলতে পারেন।

জনকল্যাণ : আশিক আপনি ব্যাগ্রাউন্ড আর্টিস্ট থেকে ফ্যাশনের প্রধান মডেল কিভাবে হলেন?

আশিক : স্কিনে অল্প সময়ের জন্য থাকলেও আমার ভিতরে একরকম ভলোলাগা কাজ করা শুরু করে। আমি আমার ফেসবুক ওয়ালে বিভিন্নভাবে প্রচার প্রচারণা শুরু করি। তারপরই ফেইসবুকেই ডিজাইনার জাহিদ আকাশ ভাইয়ের সাথে আমার কথা হয়। তিনি আমাকে একুশে টিভির ফ্যাশন প্রোগ্রাম ব্রাইডাল গাইড-এ কাজের কথা বললে আমি সেই সুযোগটি গ্রহণ করি।

জনকল্যাণ : একুশে টিভির কাজের পর আপনি আর কোন কাজ করেছেন কি?

আশিক : জি হ্যা এরপর আমি ডিজাইনার সাব্বির শওকত ভাইয়ের মাধ্যমে এস এ টিভির হাইলাইট অফ ফ্যাশনে আমরা ৫ জন প্রধান মডেল হিসেবে কাজ করি এবং এটাই এখন অবধি আমার শেষ কাজ।

জনকল্যাণ : আচ্ছা আশিক আপনি নতুন আর কোন কাজের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন কিনা?

আশিক : কয়েকটা কাজের কথা চলছে। আমি নিজেও চেষ্টা করছি কাজ করার। বাকিটা আল্লাহ ভরসা।

জনকল্যাণ : এ লাইনে আসার পিছনে সব থেকে বেশি কার অবদান রেয়েছ?

আশিক : আমার মা আমাকে সব থেকে বেশি অনুপ্রেরনা ও সাহস জুগিয়েছেন।

জনকল্যাণ : ভবিষ্যতে কি ছোট বা বড় পর্দায় অভিনয় করার ইচ্ছা আছে?

আশিক : ইচ্ছা তো আছেই। তবে আল্লাহর রহমত এবং আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতা না থাকলে, জানি সেটা কখোনই সম্ভব নয়।

জনকল্যাণ : ধন্যবাদ আশিক। আপনার আগামীর শুভকামনা ও সফলতা কামনা করছি। দৈনিক জনকল্যাণ পত্রিকার পক্ষ থেকে আপনার জন্য শুভকামনা রইলো।

আশিক : আপনাকেও ধন্যবাদ সেই সাথে দৈনিক জনকল্যাণ পত্রিকার সকল কলাকুশলীদের প্রতি ধন্যবাদ। আমি চাই সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি ভালো কাজের মাধ্যমে সবার মাঝে একটা জায়গা করে নিতে চাই। ভালো কাজ উপহার দেওয়ার অপেক্ষায় রইলাম।

পোষ্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *